ডিভাইস বিস্তারিত ও বান্ডেল অফারঃ

ডিভাইসের নাম মূল্য (টাকা)
iPhone Xs 64GB ১,২৯,৯০০
iPhone Xs 256GB ১,৪৯,৯৯০
iPhone Xs 512GB ১,৭৪,৯৯০
iPhone Xs Max 64GB ১,৪৪,৯৯০
iPhone Xs Max 256GB ১,৬৪,৯৯০
iPhone Xs Max 512GB ১,৮৯,৯৯০

রং – গোল্ড, সিলভার এবং স্পেস গ্রে

ট্যাগিংঃ  গ্রাহক পাবেন ১৫ জিবি ইন্টারনেট (৫ জিবি ইন্টারনেট + ১০ জিবি বায়োস্কোপ স্ট্রিমিং ইন্টারনেট ফ্রি ৭ দিনের মেয়াদসহ।

বান্ডেল অফারঃ

  • ৩০৫ টাকায় (সকল চার্জ অন্তর্ভুক্ত) ৫ জিবি (মেয়াদ ২৮ দিন)কিনলে গ্রাহক পাবেন ৫ জিবি ফ্রি জিবি বায়োস্কোপ স্ট্রিমিং ইন্টারনেট (মেয়াদ ৭ দিন)।
  • গ্রাহক এই ডাটা অফার ৩ মাসে ৬ বার কিনতে পারবেন।

ইন্টারনেট অফার অ্যাকটিভেশনঃ

ট্যাগিংঃ সিম প্রবেশ করিয়ে ডিভাইস পুনরায় চালু করতে হবে। 

অফার অ্যাকটিভেশন কিওয়ার্ডঃ

IPXS টাইপ করে ২৫০৫০ নম্বরে পাঠাতে হবে (কোন চার্জ প্রযোজ্য নয়)

চেক পয়েন্টঃ গ্রাহক কতবার অফারটি নিয়েছেন তা জানতে Chk IPXS টাইপ করে ২৫০৫০ নম্বরে পাঠাতে হবে (কোন চার্জ প্রযোজ্য নয়)।

শর্তাবলীঃ

  •  কি-ওয়ার্ডগুলো কেইস সেনসেটিভ নয়।
  • অফারগুলো নির্দিষ্ট মডেলের ডিভাইসের জন্য প্রযোজ্য।
  • নতুন-পুরনো সকল প্রিপেইড ও পোস্টপেইড গ্রাহকের জন্য এই অফারটি প্রযোজ্য।
  • স্কিটো গ্রাহকদের জন্য এই অফারটি প্রযোজ্য নয়।
  • মেয়াদ অ্যাক্টিভেশনের দিন সহ দিন
  • ট্যাগিং অপশনটি ২ মাসের জন্য প্রযোজ্য, তবে কোনো গ্রাহক ৫৯তম দিনে ট্যাগড হলে তিনি পরবর্তী ৩ মাসে সর্বোচ্চ ৬ বার অফারটি নিতে পারবেন।
  • প্রতিমাসে গ্রাহক সর্বোচ্চ ২ বার এই বান্ডেল অফারটি কিনতে পারবেন।
  • গ্রাহক অপশনটি গ্রহণ করা মাত্র ভ্যালিড ট্যাগিং-এর একটি কনফার্মেশন এসএমএস পাবেন।
  • ভ্যালিড ট্যাগিংয়ের জন্য গ্রাহককে ৪৮ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে।
  • বায়স্কোপ স্ট্রিমিং ভলিউম কেবলমাত্র বায়স্কোপ স্ট্রিম করার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।
  • ট্যাগিং ব্যর্থ হলে, গ্রাহককে স্মার্টফোন বন্ধ করে পুনরায় চালু করতে হবে এবং আবার ট্যাগিং রিকোয়েস্ট পাঠাতে হবে, অথবা ১২১ নম্বরে কল করে গ্রামীণফোনের কাস্টমার সার্ভিসে যোগাযোগ করতে হবে।
  • বোনাস ব্যাল্যান্স চেকঃ প্রিপেইড এবং পোস্টপেইড গ্রাহকরা তাদের বোনাস এবং ক্রয়কৃত ইন্টারনেট ব্যাল্যান্স *121*1*2# নম্বরে ডায়াল করে জেনে নিতে পারবেন।
  • প্রতিবার ইন্টারনেট প্যাক শেষ (মেয়াদ/ভলিউম) হবার পর সর্বোচ্চ PayGo রেট  ৫.৬ টাকা/প্রতি মাসে (VAT,SD,SC অন্তর্ভুক্ত)
  • ফ্রি অফারটি চালু হতে সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টা সময় প্রয়োজন।
  • ভ্যালিড ট্যাগিং শেষে পরবর্তীতে পাঠানো নির্দেশনাবলি গ্রাহকদেরকে অনুসরণ করতে হবে।
  • মেয়াদ থাকা অবস্থায় একই ডাটা প্যাক (Xটাকায় Xজিবি) পুনরায় ক্রয় করলে নতুন ডাটা ব্যালেন্সের সাথে আগের ডাটা যুক্ত হবে।
  • ইন্টারনেট অফারটি বন্ধ করতে #121*3041# নম্বরে ডায়াল করতে হবে।
  • ভ্যালিড ট্যাগিংয়ের জন্য সকল নতুন এবং অব্যবহৃত সিম কার্ডের ক্ষেত্রে, প্রথমে নম্বরটি চালু করে নতুন ক্রয় করা হ্যান্ডসেটে সিম প্রবেশ করাতে হবে।
  • একই গ্রাহক একাধিকবার ট্যাগিং করলে প্রথম ভ্যালিড ট্যাগিং বিবেচনায় এনে ক্যাম্পেইনের সুবিধাসমূহ প্রযোজ্য করা হবে এবং ভ্যালিড ট্যাগিং-এর পর বান্ডেল বহাল থাকবে।
  • অটো রিনিউয়াল ফিচার থাকছে না, তাই কোনো গ্রাহক যদি ৩০ দিনের মধ্যে অফারটি রিনিউ না করেন তাহলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিঅ্যাক্টিভেটেড হয়ে যাবে।
  • উপরে উল্লেখিত প্ল্যানটি সীমিত সময়ের প্রোমোশনাল অফার এবং পরবর্তী ঘোষণা দেয়ার আগ পর্যন্ত প্রযোজ্য থাকবে।
  • শুধুমাত্র বৈধ এবং গ্রহণযোগ্য IMEI-এর জন্য এই বান্ডেল অফারটি প্রযোজ্য হবে।
  • এই স্মার্টফোনগুলোর সাথে 4G অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে গ্রাহকের 4G নেটওয়ার্ক কভারেজকৃত এলাকায় 4G সমর্থনকারী সিম থাকতে হবে।
  • সিম 4G সমর্থক কিনা তা চেক করতে ডায়াল করুন *121*3232#
  • Apple ডিভাইসের বিক্রয়োত্তর সেবা পেতে গ্রাহককে স্ব-স্ব সার্ভিস সেন্টারে যেতে হবে
  • ক্যাম্পেইন শেষে ট্যাগিং সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ গ্রহণযোগ্য হবে না।

MNP- এর নিয়মাবলিঃ

১। গ্রাহকদের ডিভাইস ক্রয়ের সময় নেয়া গ্রামীণফোন সিমটি পুরো ইএমআই চলাকালীন সময়ে ব্যবহার করতে হবে।

২।  পুরো ইএমআই পিরিয়ড টিকে থাকার পর নির্দিষ্ট ব্যাংকে পুরো পেমেন্টের উপরে লেখা সময়ের ভিত্তিতে তা বিলীন হয়ে যাবে।

৩। গ্রাহকেরা নির্দিষ্ট ইএমআই পিরিয়ডের পূর্বেই টাকা পরিশোধের সুযোগ থাকলে সেটা করে গ্রামীণফোন সিম ও ডিভাইস আলাদা করার অনুরোধ করতে পারেন। এক্ষেত্রে, নিচের শর্তগুলো গ্রাহককে অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

  • সেটেলমেন্ট সার্টিফিকেট/পেমেন্ট ক্লিয়ারেন্স ডকুমেন্ট
  • গ্রামীণফোনকে ডিভাইসের ১৫ শতাংশ পেমেন্ট

৪। গ্রাহকের স্বীকারোক্তি অনুসারে , কোনো সার্ভিস মাইগ্রেশন কিংবা কোনো ধরনের মাইগ্রেশনের অনুরোধ করা সম্ভব হবে না যদি গ্রামীণফোন, নির্দিষ্ট ব্যাংক কিংবা ইএমআই-এর কোনো শর্ত বাকি থাকে। এছাড়া গ্রাহক নিশ্চিত করে ও স্বীকৃতি দেয় যে, গ্রামীণফোনে এমন কোনো অনুরোধ আসলে তা তাৎক্ষণিকভাবে বাতিল করার ক্ষমতা রাখে।

৫। গ্রাহক স্বীকার করবেন যে, গ্রামীণফোন ফোন নির্মাণকারী নয়, বরং ডিভাইস বিক্রয়কারী। তাই, বিক্রয় পরবর্তী সেবার ক্ষেত্রে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় পরবর্তী সেবা পলিসির ভিত্তিতে সেবা প্রদান করা হবে। এছাড়া, গ্রামীণফোন গ্রাহকের দাবীকৃত অন্য কোনো বিক্রয় পরবর্তী সেবার দায় গ্রহণ করবে না।

 

grameenphone